রবিবার , এপ্রিল 11 2021
Breaking News
Home / Slide1 / বিকেএসপিতে সাকিব যেভাবে প্রস্তুতি নিবেন

বিকেএসপিতে সাকিব যেভাবে প্রস্তুতি নিবেন

গাজী নাসিফুল হাসান: বিকেএসপি থেকেই উঠে এসেছিলো আজকের বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কান্ডারি সাকিব আল হাসান। এবার সেই বিকেএসপিতেই নিজের প্রত্যাবর্তন ক্যাম্প শুরু হবে। গত বছর জুয়ারির প্রস্তাব গোপন রাখার দায়ে আইসিসি সাকিবকে ১ বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা দেয়। আর সেই নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে চলতি বছরের ২৯শে অক্টোবর। ধারণা করা হচ্ছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট দিয়েই আবারো দলে ফিরবেন এই অলরাউন্ডার। ৩১শে আগষ্ট দেশে ফিরছেন সাকিব আল হাসান। আর এককভাবে নিজের প্রস্তুতি শুরু করবেন ৪/৫ সেপ্টেম্বর থেকে বিকেএসপিতে। আর যে বিকেএসপি থেকে সাকিবের পথচলা এবার সেই বিকেএসপিতেই সাকিব নিজের প্রত্যাবর্তন মিশন শুরু করবেন।

সাকিব একবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন বিকেএসপিতে থাকা দিনগুলো নিয়ে একটি বই লিখে ফেলা যাবে। আর সেটিই যদি হয় এবার সেই বইয়ে বাড়তি মাত্রা যোগ হবে তার বলাই বাহুল্য। কেননা নিষেধাজ্ঞার এই সময়ে সাকিব দলীয় অনুশীলন করতে পারবেন না, পাবেন না বিসিবি থেকে কোনো অবকাঠামোগত সুবিধা। পুরো ভিন্ন আঙ্গিকে এককভাবে সাকিব নিজেকে প্রস্তুত করবেন। আর এই প্রত্যাবর্তনের মিশন সাকিব শুরু করবেন বিকেএসপি থেকে। আর তার সাথে থাকবেন বাংলাদেশের বিখ্যাত দুই কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিম ও সাকিবের গুরু মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।

তবে সকলের আগ্রহ হচ্ছে সাকিব আল হাসানের ফেরার প্রস্তুতি কেমন হবে বিসিবি কি কি উদ্দোগ নিয়েছে এই দেশসেরা ক্রিকেটারের জন্য। মূলত দেশে ফিরে সাকিব প্রস্তুতি ক্যাম্প করবেন বিকেএসপিতে এটি সাকিব নিজেই ঠিক করেছেন সেই সাথে তার সাথে থাকার জন্য নাজমুল আবেদীন ফাহিম ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিনকেও বলেছেন।

বিকেএসপির একটি আন্তর্জাতিক হোস্টেলের ক্যাবিনে থাকবেন সাকিব তবে সেখানে অনুর্ধ্ব-১৯ দলের ক্যাম্প করা ক্রিকেটাররা থাকলেও সাকিবের সাথে তাদের দেখা হবে না। তবে বিসিবিও সাকিবের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে চায়। তাই আকসুর সাথে যোগাযোগ করেছে বিসিবি। আকসু বলেছে সাকিব চাইলে বিসিবির সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবে এবং কোচরাও তাকে সহযোগিতা করতে পারবে। তবে জাতীয় দলের কোচদের কাছ থেকে সহযোগিতা পেতে হলে সাকিবকে একটি শর্ত মানতে হবে তা হলো তাকে এককভাবে কোচদের সাহচর্য পেতে হবে কোনো ক্রিকেটার উপস্থিত থাকতে পারবেন না।

সাকিব বিকেএসপিতে সব ধরনের প্রথম শ্রেণীর সুবিধা পাবেন। একটা আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেটার যা যা সুবিধা পায় তা সব দেয়ার চেষ্টা করবে বিকেএসপি। চাইলে জাতীয় দলের কোচরাও সাকিবকে পর্যবেক্ষণ ও পরামর্শ দিতে পারবেন। তবে আকসু একটি বিষয় জানিয়ে দিয়েছে সাকিব যাই করুক তা যেন লোকচক্ষুর আড়ালে করে। এমনকি সাকিব আল হাসান এই প্রস্তুতি ক্যাম্প চলাকালীন কোনো ধরনের সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হতে পারবেন না বলে জানা গিয়েছে। আর এই কারণেই তো সাকিব আল হাসান বিকেএসপিকে বেছে নিয়েছেন। কেননা বিকেএসপিতে এমনিতেই জনসাধারণের প্রবেশ নিষেধ। তাই সব দিক বিবেচনায় বিকেএসপির চেয়ে ভালো জায়গা তো আর হতে পারে না।

বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমীদের একটিই চাওয়া দ্রুত এই অপেক্ষার অবসান হোক এবং দেশসেরা ক্রিকেটার আবারো ফিরে আসুক।

About Md Shahadat Hossain

Check Also

স্থগিত হলো অনূর্ধ্ব-১৯ নারী বিশ্বকাপ

ইকবাল হাসান: ২০২১ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশে আয়োজিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকা অনূর্ধ্ব-১৯ নারী বিশ্বকাপের আসরটি করোনার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।