বৃহস্পতিবার , অক্টোবর 29 2020
Home / Slide1 / বন্যার্তদের পাশে মুশফিকুর রহিমের ফাউন্ডেশন

বন্যার্তদের পাশে মুশফিকুর রহিমের ফাউন্ডেশন

গাজী নাসিফুল হাসান: যাত্রা শুরু করলো বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমের গড়া ফাউন্ডেশন। ভারী বর্ষণের ফলে বাংলাদেশের বিভিন্ন দুর্গম অঞ্চলে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। আর সেই বন্যার ফলে অনেক মানুষ কষ্টে জীবন যাপন করছে। আর বন্যা কবলিত মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে যাত্রা শুরু করেছে মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশন। মুশফিকুর রহিমের ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরুর খবর মুশফিকুর রহিম নিজেই জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের নিজের ভেরিফাইড পেইজে।

মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশনের যাত্রার শুরুতে মুশফিকুর রহিম তার নিজ জেলা বগুড়ায় ৩০০ বন্যার্ত পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছেন। এই কাজটিতে মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশনকে সহায়তা করে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি বগুড়া ইউনিট।

বন্যার্তদের কষ্ট নিয়ে মুশফিকুর রহিম তার ফেসবুকের ভেরিফাইড পেইজে লিখেছেন, “যতদূর চোখ যায়, শুধু পানি আর পানি। দিগন্তে সবুজের হাতছানি। ভরাট যৌবনা নদীর বুক চিরে এগিয়ে চলা পালতোলা নৌকা আর মাছরাঙার জলকেলি। দর্শানার্থীদের জন্যে চোখ ঝলসানো সৌন্দর্য, আর নদীর দুপাশে বসবাসরত মানুষের জন্যে মূর্তিমান আতঙ্ক। একে করোনার ছোবল, তার উপর বন্যার নির্যাতন। স্বাভাবিক জীবনে হঠাৎ ছন্দপতন। সমস্ত ফসল, বসতবাড়ি পানির নিচে, ভয়ালদর্শন স্রোতে গ্রামের অনেকখানি নদীগর্ভে।”

বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো নিয়ে মুশফিকুর রহিম বলেন, “চিরকাল খেটে খাওয়া মানুষগুলো আজ বড্ড অসহায়। নিয়তি মেনে নেয়া সজল চোখে, আজ শুধুই সাহায্যের আকুতি। সব খবর জেনে সিদ্ধান্ত নেই, এই মানুষগুলোর কাছে আমার, সামান্য সম্মান মোড়ানো ভালোবাসা পৌছাতেই হবে। এটা আমার দায়িত্ব। এরপরের গল্পটা, শুধুই মুখে হাসি ফোটানোর গল্প।”

মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশনের যাত্রা ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি বগুড়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে মুশফিকুর রহিম বলেন, “আলহামদুলিল্লাহ। মহান আল্লাহর অশেষ কৃপায়, গত দুইদিন আগে, বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানার বোহাইল ইউনিয়নের অন্তর্গত বোহাইল গ্রাম ও ধারাভার্ষা চরে, বন্যাদুর্গত ৩০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে আমার স্বপ্নের Mushfiqur Rahim Foundation আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। ত্রাণ বিতরণের যাবতীয় কাজ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্যে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি বগুড়া
ইউনিটের স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতি ভালোবাসা ও সম্মান জানাচ্ছি।”

মুশফিকুর রহিমের আগে আরো দুই বাংলাদেশী ক্রিকেটারের নিজ ফাউন্ডেশন রয়েছে। একজন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও অপরজন সাকিব আল হাসান। মাশরাফির ফাউন্ডেশন ” নড়াইল এক্সপ্রেস ” নামে ২০১৭ সালে যাত্রা শুরু করে এবং সাকিব আল হাসানের ফাউন্ডেশন ” দ্য সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন” নামে করোনার দুর্যোগে তৈরি হয়। এখন তৃতীয় বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে ফাউন্ডেশন নিয়ে যাত্রা শুরু করলেন মুশফিকুর রহিম।

About Md Shahadat Hossain

Check Also

প্রমিলা লীগ শুরু ৭ তারিখ থেকে

মোহাম্মদ মাসুমঃট্রাইকোটেক্স ওমেন্স ফুটবল লীগ করোনার কারনে অফ ছিল। দেশে যেহেতু সীমিত আকারে সব খেলাধুলা …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।