শুক্রবার , অক্টোবর 30 2020
Home / Slide1 / জার্সির স্পন্সর পাচ্ছে না ভারত

জার্সির স্পন্সর পাচ্ছে না ভারত

গাজী নাসিফুল হাসান: বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ও জনপ্রিয় ক্রিকেট বোর্ড হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ( বিসিসিআই )। তাদের খেলা ও জনপ্রিয়তা দিয়ে সকলের কাছে হাই ইমেজ খ্যাত ভারত। তবে আপনি ভাবতে পারেন কি যে, ভারত তাদের জার্সির জন্য স্পন্সর খুঁজে পাচ্ছে না। হ্যা কথাটা শুনে একটু অবাক হলেও বাস্তবে ঘটছে সেটিই। ভারতীয় দলের জন্য জার্সি ও পোশাকসামগ্রীর জন্য স্পন্সর খুঁজে পাচ্ছে না বিসিসিআই। এমনকি ভিত্তিমূল্য কমিয়েও পাওয়া যাচ্ছে না স্পন্সর।

২০১৬ সাল থেকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের জার্সি ও অন্যান্য সকল প্রকার পোশাক সামগ্রী তৈরির স্পন্সর ছিলো নাইকি। চলতি বছরে সেপ্টেম্বরে তাদের সাথে চুক্তি শেষ হয়ে গিয়েছে। চুক্তি শেষ হবার পর চুক্তি নবায়ন করার ব্যাপারে কোনো আগ্রহ দেখায়নি নাইকি। নাইকির নতুন করে আগ্রহ না দেখানোর কারণ হচ্ছে করোনা ভাইরাসের প্রভাব। করোনা ভাইরাসের মহামারীর কারণে যে বিশ্বব্যাপী আর্থিক মন্দা বিরাজ করছে তাতে করে অতিরিক্ত মূল্য দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর হিসেবে থাকতে চাইছে না নাইকি।

বিসিসিআই আগেই বুঝেছিলো যে নাইকিকে ধরে রাখা যাবে না। আর কি কারণে রাখা যাবে না সেটিও আচ করতে পেরেছিলো বিসিসিআই। আর যার জন্য নিজেদের দাবিও কমিয়ে আনে।

পূর্বের চুক্তি অনুযায়ী নাইকির কাছ থেকে প্রতি ম্যাচের জন্য ৮৮ লাখ রুপি করে পেত ভারত। এছাড়া রয়্যালিটি হিসেবে মোট বিক্রির মোট ১৫ শতাংশ অর্থাৎ, মোট ১০ কোটি টাকার মতো পেত বিসিসিআই। আর করোনার প্রভাবের জন্য নাইকির পক্ষে আর এত টাকা দিয়ে থাকা সম্ভব হচ্ছে না। তবে সর্বশেষ চার বছরে নাইকির কাছ থেকে বিসিসিআই পেয়েছে মোট ৩৭০ কোটি টাকা। যা বর্তমান করোনা ভাইরাসের সময় কল্পনাও করা যায় না।

আর সেই সব দিক বিচার বিবেচনা করেই বিসিসিআই তাদের ভবিষ্যৎ স্পন্সরদের জন্য চাহিদা মাত্রা কমিয়ে এনেছিলো। ভারতীয় বিশ্বস্ত গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবর অনুযায়ী হ বিসিসিআই আগে জার্সির স্পন্সরদের ম্যাচ প্রতি ৮৫-৮৮ লাখ রুপি দাবি করতো যা এখন ৩১ শতাংশ কমিয়ে এনেছে বিসিসিআই। এখন জার্সির স্পন্সরদের ভিত্তিমূল্য হচ্ছে ৬৫ লাখ রুপি।

আরেক ভারতীয় গণমাধ্যম মুম্বাই মিররের মত, বিসিসিআই এর টার্গেট ছিলো চারটি ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। সেগুলো হলো: নাইকি, এডিডাস, পুমা, ফ্যানওড। বিসিসিআই ধারণা করেছিলো দাম কমিয়ে এদের একজনকেই স্পন্সর নেবে। কিন্তু এদের কেউই আগ্রহ দেখায়নি।

পরিস্থিতি এরকম থাকলে অষ্ট্রেলিয়া সিরিজে কোনো জার্সি স্পন্সর ছাড়াই যাবে ভারত।

About Md Shahadat Hossain

Check Also

এবার ‘৮০০’ মুভির পরিচালককে হুমকি

ইকবাল হাসান: লঙ্কান ক্রিকেট হোক কিংবা বিশ্ব ক্রিকেট সেরা স্পিনারের নামের তালিকায় প্রথম দিকে থাকবেনমুত্তিয়া …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।