মঙ্গলবার , অক্টোবর 27 2020
Home / বাংলাদেশ ফুটবল / বাংলাদেশের ফুটবলে এখন চলছে জেনারেশন গ্যাপ!

বাংলাদেশের ফুটবলে এখন চলছে জেনারেশন গ্যাপ!

বাংলাদেশের ফুটবল অঙ্গনে এখন সত্যিকার অর্থেই একটা জেনারেশন গ্যাপ তৈরি হয়ে গেছে। আগে এত প্রযুক্তি, সুযোগ-সুবিধা, কোচসহ নানা রকম আয়োজন ছিল না। কিন্তু মাঠভরা দর্শক থাকতো। ফুটবলে একটা প্রান ছিল। মানুষের মুখে মুখেই খেলার তারিখ সময় জানাজানি হয়ে যেত। সবাই নিজ দলের খবর এতটা রাখতো যে নিজের পরিবারের খবরও এতোটা রাখতো কিনা সন্দেহ। তারা দলের জয়ে উল্লাসে ফেটে পড়তো। হারেও তাদের উপর প্রভাব পড়তো। কখনো তারা নিজ দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের উপরও চড়াও হতো। সবই ছিল মানুষের মন থেকে একটা আবেগভরা ভালবাসা। আর দর্শকদের ভালবাসা নিয়েই ঐ সময়কার নামীদামী খেলোয়াড়রা তারকা খ্যাতি পেয়ে যান। আজকে যারা বাফুফে তে আছেন তারা ঐ সময়কার মানে বাংলাদেশের সোনালী যুগের প্রতিনিধি। কিন্তু হায় আফসোস এখন আর ফুটবলের সেই আগের জৌলুস নেই। এক সময় খেলোয়াড়দের খারাপ নৈপূন্য, কর্মকর্তাদের উদাসীনতা ও পাতানো ম্যাচের মহোৎসবের কারনে মানুষ ফুটবল থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। আগে যেমন বাংলা চলচ্চিত্র একসাথে পরিবারের সবাই মিলে দেখা যেত। কিন্তু পরে যখন অশ্লীলতা জেকে বসে তখন তো আর দেখার কোন উপায়ই ছিল না। ঠিক তেমনি আগে যারা ফুটবলকে ভালবেসে মাঠে আসতেন তারা যখন বিভিন্ন কারনে মুখ ফিরিয়ে নেন তখন একটা ব্যাপার অবশ্যই ফুটবলকে ক্ষতি করেছে তা হল যে, তারা যখন নিজেরা মুখ ফিরিয়ে নেন সাথে সাথে তাদের আগামী প্রজন্মকেও তারা উৎসাহিত করতে পারেননি। কারনও আছে। মাঠে এসে তো আর পাতানো খেলা দেখবেন না বসে বসে। কাজেই নতুন প্রজন্ম এই সুযোগে মিডিয়া বা যুগেরে চাহিদা মোতাবেক ডিশের মাধ্যমে ঘরে বসেই আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন ফুটবল দেখতে খাকে। যা দেখতে দেখতে তাদের মনে বিদেশী লীগের খেলা বা দল গুলো এমন ভাবে তাদের মনে গেথে গেছে যে মনে হয় যেন পাথরে খোদাই করা। তা তাতো আর অত সহজে মুছে যাওয়ার নয়। তাই আজকের বাংলাদেশের নতুন প্রজন্ম বাংলাদেশের খেলা থেকে দূরে এবং মাঠে এসে বসে সময় নিয়ে খেলা দেখা থেকেও দূরে। তাইতো আজ বাংলাদেশের ফুটবলে চলছে দর্শকের জেনারেশন গ্যাপ। এখানে নতুন প্রজন্ম একেবারেই ফুটবল থেকে দূরে।

কাজেই এখন যেটা দরকার সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালানো। যাতে করে বর্তমান তরুন প্রজন্ম যারা বিভিন্ন খেলা নিয়ে মাতামাতি করছে তাদের ফুটবল কেন্দ্রীক করা। বাংলাদেশের ফুটবলের প্রতি তাদের আকৃষ্ট করা। সঠিক পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা। তাদের কাছে সব খেলার আপডেট গুলো পৌছে দেয়া। আসলে তারা তো ফুটবলকে অবশ্যই ভালবাসে। ভালবাসে বলেই তারা রাত জেগে বিভিন্ন বিদেশী লীগের খেলা গুলো তারা গুরুত্বের সাথে দেখে থাকে। এখন কাজ হলো তাদের কাছে আমাদের খেলা গুলোর ব্যাপারে তুলে ধরা। তাদের অবহেলা না করে সঠিকভাবে গুছিয়ে এনে তাদের মোটিভেট করা। কাজ করলে অবশ্যই তারা আমাদের ফুটবলের প্রতি আকৃষ্ট হতে বাধ্য।

আর যাই হোক সবার ভিতরে অবশ্যই দেশপ্রেম বলে কিছু আছে। দেশের টানে, দেশের জন্য অবশ্যই তারা দেশের ফুটবলকে সাপোর্ট করবে।

About Md Shahadat Hossain

Check Also

গুজব ও নিজেদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালো সাইফ

মোঃ মনিরুজ্জামানঃ সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব নিয়ে ছড়ানো সকল গুজব এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে মিডিয়ার সাথে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।