শনিবার , মে 8 2021
Home / Slide3 / অভাবের জীবন ছেড়ে না ফেরার দেশে বিশ্বের প্রথম নারী ধারাভাষ্যকার

অভাবের জীবন ছেড়ে না ফেরার দেশে বিশ্বের প্রথম নারী ধারাভাষ্যকার

ইকবাল হাসান:

বিশ্বের প্রথম নারী ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার চন্দ্রা নাইডু চরম আর্থিক সংকটে থেকে অবশেষে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নিলেন তিনি।

রোববার ইন্দোরে ৮৮ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি।

চন্দ্রা শুধু ধারাভাষ্যকার হিসেবেই জনপ্রিয় ছিলেন না, তার আরেকটা বড় পরিচয় ছিল। তিনি ভারতের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক সিকে নাইডুর কন্যা।

ইন্দোরে সরকারি একটি মহিলা কলেজের ইংরেজি বিভাগের অধ্যক্ষ ছিলেন চন্দ্রা। ১৯৯৫ সালে তিনি তার বাবার স্মৃতি নিয়ে ‘সিকে নাইডু : এ ডটারস রিমেমবারস’ নামে একটি বই লিখেন।

স্বনামধন্য ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার সুশীল দোসির সঙ্গে খুব ভালো সম্পর্ক ছিল চন্দ্রার। তাকে বড় বোনের মতো ভালোবাসতেন জানিয়ে দোসি বলেন, ‌‘বাবার মতো তিনিও প্রথম কিছু একটা করে দেখাতে চেয়েছিলেন। বাবার অনেক গুণই তার মধ্যে ছিল। চন্দ্রা খুবই সাহসী এবং নির্ভীক প্রকৃতির একজন ছিলেন। জীবনে তিনি কখনই সহজে হার মেনে নিতে পারতেন না। আমি তার ধারাভাষ্য ক্যারিয়ার দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছি। যখন আমি অস্ট্রেলিয়াতে যাচ্ছিলাম ধারাভাষ্য দিতে (১৯৭৭-৭৮), তিনি আমাকে বিমানবন্দর পর্যন্ত দিয়ে এসেছিলেন।আমার বাবা মা তখন বেশ চিন্তায় ছিলেন। চন্দ্রা তাদের সঙ্গ দিতেন।’

দোসি যোগ করেন, ‘জীবনের শেষ দিনগুলো তাকে বিছানায়ই কাটাতে হয়েছে। তার আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। কিন্তু মধ্যপ্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন বা বিসিসিআই (ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড) তাকে কোনো সাহায্য করেনি।’

প্রসঙ্গত, ১৯৭৬-৭৭ সালে প্রথম এমসিসি এবং বোম্বে ম্যাচের মধ্য দিয়ে ধারাভাষ্য জীবনে যাত্রা শুরু। এরপর এই অঙ্গনে ভালোই জনপ্রিয়তা কুড়ান। কিন্তু সেই আমলে টাকা-পয়সা সেভাবে রোজগার করতে পারেননি।

About Md Shahadat Hossain

Check Also

রেকর্ড দামে মেসির বুট বিক্রি

ইকবাল হাসান: বার্সেলোনার হয়ে লিওনেল মেসি যে বুট পরে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েছিলেন তা বিক্রি …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।